আন্তরীক্ষ – পিউ রাণা

জীবনে প্রথমবার স্কুলে যাওয়ার অভিজ্ঞতা ঠিক কি রকম হয় তা বলে বোঝানো খুব কঠিন।
অনুভূতিটা হয় যেনো কোনো ছোটো শিশু পাখিকে তাহার মা তাকে উড়তে শেখাচ্ছে। হ্যাঁ ঠিক সেই রকমই ছোটো এক শিশুকে তাহার বাবা‌ মা শিক্ষা জগৎরে রঙিন আকাশে উড়তে শেখাচ্ছে।
প্রথমবার শিশু ভয় পেলেও পরে তার মতো আরো পাঁচটা শিশুর সাথে মিশে বলাকা হয়ে উড়ে যায় যেনো কোনো দ্বীপ দ্বীপান্তর নতুন কোনো কিছু শেখার আগ্রহ নিয়ে।

সত্যিই তো আমাদের জগত আর কতটুকু। ধরণীর প্রথাগত নিয়মের বেড়াজালে আমাদের আটকে পরতে হয় কোনো এক গন্ডির মধ্যে যেখানে সবাই হয়তো নিয়ম করে চলে । যেখানে কোনো ইচ্ছে প্রকাশ নেই, স্বাধীন ভাবে ওড়ার চিন্তা নেই। যেখানে খালি নিয়ন আছে। শুধু অন্যের কথায় ডাকা তো অন্যের কথায় বসা। কিন্তু হ্যাঁ আকাশে উড়লে ও নিজের আকাশ তৈরি করে নিতে হয়, যেখানে শুধু সেই হবে সবার সেরা আর কেউ নয় ।

ঠিক এইরকম জগৎ হচ্ছে শিক্ষার জগৎ । যেখানে কত‌ মানুষের মতামত তাদের বই আকারে প্রকাশিত হয়। অন্য দেশেরও বই এর মধ্য যেনো নিজের মত নিজের আকাশ খুজে পাওয়া যায়।এই সব খুজে পাওয়ার মধ্যে যেনো নিজের একটা জগৎ থাকে , যেখানে কতো মতামতে মিল থেকে শুরু করে কত স্বাধীন ভাবনা থাকে।
নিজের আন্তরীক্ষ থাকে।

Piu Rana

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top