আমরা কি পিছু হাঁটছি? শম্পা সাহা

সমকামিতা সম্পর্কিত একটি লেখা ভালো লাগায় ফেসবুকে আমি সেটা ভালো লেগেছে জানিয়ে কমেন্ট করি, তাতে একজন আমায় প্রশ্ন করেন, “দিদি, আপনি কি সমকামিতা কে সমর্থন করেন? ” তাকে আমি যে উত্তর টা দিয়েছিলাম সেটা হল,
“আমি ব্যক্তি স্বাধীনতা কে সমর্থন করি”।

আমরা মানুষ সমস্যায় পড়লে তাকে সাহায্য করার মত সময় দিতে পারিনা, কোনো মানুষ একাকীত্বের কারণে ধীরে ধীরে ডিপ্রেশনের দিকে চলে যায়। শেষে হয়তো জীবন টাও শেষ করে দেয়। তাকে দু মিনিট কথা বলে তার একাকীত্ব কাটাতে সাহায্য করতে পারি না।

রাস্তায় কেউ অ্যাক্সিডেন্ট হয়ে পড়ে থাকলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাবার মত সময় আমাদের হাতে নেই।

বৃদ্ধ বাবা মাকে দেখাশোনা করতে হবে ভয়ে বৃদ্ধাশ্রমে দিয়ে আসি কারণ আমরা ভীষণ ব্যস্ত! আমরা ব্যস্ততার অজুহাতে সম্পর্ক গুলোর গলাটিপে ধরি।

অথচ কে কাকে চুমু খাচ্ছে, কে মেয়ে হয়ে মেয়েকে বিয়ে করতে চায়, কে কার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক রাখে এ বিষয়ে ভীষণ তৎপরতা দেখাই।

সেখানে সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে, বিরোধিতা করতে ভীষণ ভালোবাসি।

আমাদের সরকার সমকামিতা কে স্বীকৃতি দেবে না কারণ তা সন্তান উৎপাদন কে সম্ভাব্য করে না, কিন্তু এতে করে যে নিঃসন্তান দম্পতিদের বৈবাহিক স্বীকৃতিও কেড়ে নেওয়া হলো, না তাই নয় কি?

আমরা কি আবার সেই “পুত্রার্থে কৃয়তে ভার্যা”, তে ফিরে যাচ্ছি?
আমরা কি, live and let live”, ভুলে যাচ্ছি, আর শুধু নাক গলাতে শিখছি সব ব্যাপারে?

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top