আমরা যা করতে পারি

এস. এম. রায়হান চৌধুরী

ইংরাজী ভাষায় নিজের নাম লিখুন ।

 11 total views

কেউ গোপনে ব্রোথেলে যাচ্ছে
আত্মতৃপ্তি শেষে এসে মুখে বিদ্রোহের ফুলঝুরি,
কেউ খাবার জোটাতে জোটাতেই ব্যস্ত
বিদ্রোহের সময় কই?
যাদের থাকার জায়গা নেই
তারা বোঝে না বিদ্রোহের মানে,
আর কেউ চুপিচুপি থাকে

আর যারা রাজপথে
তাদের লাশও পাওয়া যায় না সময় সময়!
এভাবেই চলে-
চায়ের কাপে ঝড় ওঠে,
সিগারেট হাতে নিয়ে রাষ্ট্র বদলে দেবার বক্তৃতা হয়,
রেললাইনের ধারে গাঁজায় টান দিয়ে নষ্ট হয়ে যাওয়া ছেলেটাও-

যেন কিছুই করার নেই,
খাও, দাও, ফূর্তি করো আর গালি দাও।
আসলে কিছু করার থাকে না,
এতসব করা হয় না হওয়ার নিমিত্তেই,
এভাবেই চলবে-
হয়ত স্লাট বলে গালি দেওয়া মেয়েটাও মিছিলে যোগ দিবে,
প্রেম করে বেড়ানো প্রেমিক ছেলেটাও ব্যারিকেড ভাঙবে,
কবিরা কবিতা না লিখে বন্দুক ধরবে,

তবুও এভাবেই চলবে-
রাস্তার ধারে পড়ে থাকবে কিশোরীর খুবলে খাওয়া দেহ,

তোমাকে ভুলতে চেয়েও ভুলতে পারব না আমি,
স্বাধীনতা বলে আসলে কিছুই ছিল না কখনও!
এভাবেই চলবে বলে থেমে থাকবে না কিছু
আমরা যা করতে পারি শুধু তা হচ্ছে বিদ্রোহ!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *