তোমার অনস্তিত্ব -সায়ন দাস

 [post-views]

এসেছি সেই পথে,ঘুরেছি শেষ থেকে শুরু,     তোমার অনস্তিত্বের মতো পরিবে দেখি আজ চারিদিক।
           এপার ওপার ক্রূরমতি মানুষের ভিড় ,  পায়ের তলে রঙের মতো মিশেগিয়েছে হলুদ ফুলেরা। পাতার বিছানাই পিশিত স্বাদের আগুন-
               দাউদাউ করে জ্বলতে দেখেছি।
                      অসহ্য তীব্র আতস আলো;               পুড়েযাচ্ছে আমার আপাদমস্তক।
                   তোমা’র মতো স্নিগ্ধ শান্ত আলো আঁধার –
                                   কই আর চারদিক?
                 নিমিশে নিশিতে যেন সব ছারখার!
 হাজার বছর ধরে দেখা এক স্বপ্নের মতো দ্বীপ     অকস্মাৎ কোন ঘটনা?   ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে একটি একটি করে- সাজানো সমস্ত- স্বেত পালক।
       এখনও লোক সমোক্ষের মাঝে একাকীআমি;
                     অস্থিরতা , হিম-শিহরন , ঢেউ  সর্বাঙ্গে।
                    একমাত্র আশ্রয়টুকুও আমার বিলুপ্ত আজ,
               হারানোর ভয় বুকের প্রতি স্পন্দনে-স্পন্দনে।
           জীবন-মরনের নিশ্চয়তা আমি হারিয়ে ফেলেছি;
            অন্তিম অস্তিত্বে আর কোথাও নেই কিছু বাকি।
        ধুলাই মলিন শরীরে হয়ত এক্ষণ হাঁটব প্রতিদিন!
                                 দুঃস্বপ্নের দিকে একা একা।
 
 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top