নারী – মির্জা চয়ন

– 

[post-views]

তোমাদের পুরুষ শাসিত সমাজে আমি কেবলই নারী
সম অধিকারের  নামে পেয়েছি বাঞ্ছনা গঞ্জনা
ললুপ দৃষ্টিতে দেখ আমার শরীরের প্রতিটি  অঙ্গ
ঘরের চার দেয়াল হতে অফিস পাড়ার  কক্ষে
আমি শুধুই কামরুপী নারী।
রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে শীষ বাজিয়ে চোখের ইশারায়
ডেকেছো নির্জন গহীন আড়ালে —
পুতুল খেলার বয়স না পারি দিতেই বাধ্য করেছো
তোমার ঘরনী হয়ে লালসার স্বীকার হওয়া এক
জড় প্রাণী হতে।
রান্না ঘরে আগুনের তাপ সহ্য করে রাতের
বিছানায় যৌনতার স্বীকারী
মিথ্যে আশ্বাস বানীতে দিয়োছো সন্তানের বাহানা।
বিংশ শতাব্দীতে যখনই গায়ে আধুনিকতার
পোশাক জড়িয়ে ছুটেছি
তখনই তোমাদের গায়ে ফোসকা পরে
আমি হয়ে যাই বেশ্যা নগ্ন দেহী।
রান্না ঘরের জলন্ত আগুন আমার সঙ্গী
হয়তো তাই তুমি সেদিন শরীর ছেয়ে দিয়েছিলে
জ্বলন্ত সিগারেটের আগুন!
প্রতিবাদ করতে পারি নি
তাই আজ ঠোঁটে লাল লিপস্টিক দিয়ে
সিগারেটের কালো ধোঁয়া উড়াই দুঃখগুলো ভুলতে —
তোমরা পুরুষরা প্রেমের নামে প্রেমকে কর অপবিত্র
সুজুগ পেলেই টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাও হোটেল মোটেলে
গল্পের বাহানায় শুইয়ে দাও বিছানায়
তারপর রাস্তার কামদেবী বলে ছুড়ে দাও
গহীন অরন্যে।
আমি আজ স্পষ্ট ভাষী হয়ে বলে দিতে চাই
রাজনীতি অর্থনীতি সমাজনীতি তে তোমাদের সাথে
এক কাতারে আমি সমস্বরে বলবো
আমি নারী
হ্যাঁ আমিই বিংশ শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ মানবী।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top