পৌরুষ গাথা – দেবদাস কুণ্ডু

 [post-views]

 

মহাশূন্যে উড়ে বেড়ায় যে সব পোকা
তারা তোমার অলখ্যে রচনা করে প্রেম গাথা
প্রস্তর যুগে শিকারের ছবি এঁকেছিলাম যে সব
শিল্পী,
লৌহযুগে তারা উড়ে গেল ডানা মেলে
কোনারকের মৈথুন মূর্তি, নয় সে পর্ন গ্রাফী
তুমি তার মধ্যে খোঁজ তোমার বংশ পরম্পরা 
যে কিশোর জানেই না ভালোবাসা কি? 
একদিন রাতে সে দেখে ফেলন
বাবা কিভাবে আদর করে মাকে
মা কিভাবে তাতে দেয় সাড়া
সেদিন বিশ্বসংসারের সর্বগার্সী আগুন ছুটলো
কিশোরের শিরা উপশিরায় দস্যি বালকের মতো
যে কিশোর বয়:সন্ধিকালে দেখেছিল
পাতার আড়ালে পাখিদের মৈথুন কিড়া
সেদিন সে বুঝলো নারী নিচে পুরুষ উপরে
সে বড় হলো ধীরে ধীরে
তার মধ্যে জেগে উঠলো পুরুষের আধিপত্য
সে জানলো না প্রেম, বুঝলো না ভালোবাসা 
তারপর একদিন নি:স্ব মানুষ হলো ভবঘুরে  
পৃথিবী দেখলো রক্ত ধারার মধ্যে মরে পড়ে
আছে বিপন্ন পৌরুষের আধিপত্য। 
দেবদাস কুণ্ডু
 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top