প্রায়শ্চিত্ত – রায়হান আজিজ

– 

[post-views]

ভাবছি আমি অমন খারাপ,
হলাম কেমন করে!
আঙুল নেড়ে ডায়াল করি,
দু’দিন পরে পরে ।
ছিলাম না তো অতো মিশুক,
পেতাম শুধু ভয় ।
তুমিই তো খুব আদর করে,
ভাঙালে সংশয় ।
সেই তোমারই ক্ষতি আমি,
কিকরে করলাম!
এতই যে উচ্ছনে গেছি,
নিজেও কি জানতাম?
এ পাপের যে হয়না ক্ষমা,
তবুও মাফ চাই ।
তুমি আমার প্রাণের দিদি,
আমি তোমার ভাই ।
জানি তোমায় ফোন করাটা,
হবেনা আর শ্রেয় ।
যদি কভু পড়ে মনে,
আমায় ডেকে নিও ।

রায়হান আজিজ

পরিচিতি –

——————-

রায়হান আজিজ ১৯৯২ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর রাজধানীর পুরনো ঢাকার একটি সংস্কৃতিমনা পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন । বাবা ব্যবসায়ী মোঃ ইউসুফ হোসেন ও মা গৃহিনী কামরুন নাহারের তিন সন্তানের মাঝে লেখকই সবার বড় । তিনি রাজধানীর স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৫ সালে ফার্মেসীতে সম্মানসহ স্নাতক এবং একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একই বিষয়ে ২০১৭ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন  করেন । পরবর্তীকালে তিনি রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে একজন ফার্মাসিস্ট হিসেবে যোগদান করেন এবং বছর দেড়েক সেখানে কর্মরত ছিলেন । বর্তমানে তিনি বাবার সঙ্গে পারিবারিক ব্যবসা দেখাশোনা করছেন ।

ছেলেবেলা থেকেই বই পড়ার প্রতি তার একটি ঝোঁক ছিল যে অভ্যাসটি গড়ে দিয়েছিলেন তার ছোটফুপু মিস কারিমা বেগম । লেখক ২০০৩ সালে সপ্তম শ্রেণির ছাত্র থাকাকালীন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র আয়োজিত স্কুলভিত্তিক বইপড়া কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে “স্বাগত পুরস্কার” লাভ করেন । ২০১৭ সালে দৈনিক জনকণ্ঠে জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে লেখক রচিত একটি কলাম প্রকাশিত হয় এবং সে বছরই দৈনিক সমকালের ক্রোড়পত্র “চারমাত্রা”য় তার লেখা একটি গল্প ছাপা হয় । সম্প্রতি ঢাকার “জলতরঙ্গ পাবলিকেশন্স” থেকে লেখক রচিত একটি যৌথ গল্পগ্রন্থ “জলছোঁয়া”(২০২০) প্রকাশিত হয়েছে । নাট্যপ্রেমী এ লেখক আমৃত্যু নিজেকে লেখালেখি ও বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত রাখতে চান ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top