প্রেমিককে চিঠি

শিরোনাম- প্রেমিককে চিঠি
কলমে- নাসিরা খাতুন

তোমার সাথে বলা প্রতিটা কথা আজও ভেসে ওঠে মনের স্ক্রীনে,
তোমার ছবি আজও ভেসে ওঠে মনের গ্যালারীতে।
তুমি ছিলে আমার প্রথম প্রেম,
তুমিইতো শেখালে কীভাবে ভালোবাসতে হয়।
তোমাকে আমি এতো ভালোবাসি কেনো জানো?
জানি তুমি কিছুই জানোনা আর হয়তো কখনও জানতে চাইবেনা,,,।
তবু জানাতে যে বড্ড ইচ্ছে করে,
চিৎকার করে বলতে ইচ্ছা করে,,,
আমি আজও শুধু তোমায় ভালোবাসি,
আমি আজও শুধু তোমার অপেক্ষাতে।

জানো তোমার প্রপোশ করাটা ছিল একটু আলাদা, আর পাঁচটা পুরুষের মতো তুমি আমাকে,
আই লাভ ইউ বলোনি ঠিকই কিন্তু,
তুমি বলেছিলে আমার একটা মেয়ে চাই দেবে?
আমি বলেছিলাম দিতে পারি তবে,
তুমি আমাকে কখনও ছেড়ে যাবেনাতো,,,
আমি তোমায় বড্ড ভালোবেসে ফেলেছি।
সেই মুহুর্তে আমি কেঁদে ফেলেছিলাম,
ভয় হচ্ছিল যদি আমি তোমাকে হারিয়ে ফেলি।
তুমি আশ্বাস দিয়ে বললে কাঁদছো কেন পাগলি,
আমিতো আছি আমি তোমাকে ছেড়ে যাবো কেন?
আমারতো গার্লফ্রেন্ড নয় বউ চাই।
গার্লফ্রেন্ড ছেড়ে চলে যায় কিন্তু বউ যে সারাজীবনের সঙ্গী,
তুমি হবেতো আমার বউ,
মানিয়ে নিতে পারবেতো আমার গ্রামকে?
আমি বলেছিলাম তোমার ভালোবাসা পেলে,
আমি সবই পারবো না পারলে তুমি শিখিয়ে নিও।

সেই আনন্দের সময়েও আমার চোখে জল এসেছিল,
বুকে ভয় জমে ছিল যেন গুরু গুরু মেঘের গর্জন।
কারন তোমার আমার ভালোবাসা আর পাঁচটা প্রেমের মতো ছিলনা।
ফেসবুকে বন্ধুত্ব তারপর ভালোলাগা থেকে ভালোবাসা ।
কিছুদিন পর তুমি বিদেশ যাবে,
দেশে ফিরে যদি ভুলে যাও,,,
বড্ড ভয় হতো কিন্তু ভয়টা যে এভাবে সত্যি হবে ভাবিনি।
তুমি দেশে ফিরেছো ঠিকই কিন্তু মনে আমায় রাখনি।

বছর তিনেক আগে যখন কোনো ঝগড়া,ব্রেকআপ ছাড়াই,
তুমি সব যোগাযোগ ছিন্ন করলে,
ফেসবুক, হোয়্যাটসঅ্যাপ সব নাম্বার বদলে নিলে।
পাগলের মতো হয়েগিয়েছিলাম আমি,
ফেসবুকেতে অনেক খুঁজেছিলাম তোমায়,
রাতের পর রাত জেগে কাটিয়েছি,
মাঝ রাতে ঘুম ভেঙে উঠে তোমার ছবি আঁকড়ে ধরে কাঁদতে কাঁদতে,,,
কখন যে ঘুমিয়ে পরেছিলাম তা আমি নিজেও জানিনা।
কানের ধারে বেজে উঠতো তোমার কথা গুলো।
তোমার মনে আছে কিনা জানিনা,,,
তুমি আমাকে একটা প্রশ্ন করেছিলে,,,
আমার কোন জায়গায় চুমু খেতে ইচ্ছা করে জানো?
আমি বলেছিলাম জানিনা তবে হতে পারে ঠোঁট,
টিভি সিরিয়ালেতো ওটাই দেখি।
তুমি বলেছিলে আমাকে তোমার কপালে চুমু খেতে খুব ইচ্ছা করে,,,
প্রশ্ন করেছিলাম কেনো কপাল কেনো?
তুমি বললে কপালে চুমু খেলে ভালোবাসা-বিশ্বাস দুটোই বাড়ে।
তোমার প্রতিটা কথা আমাকে আজও মুগ্ধ করে,
ভালোবাসার তখন আমি কিছুই বুঝতামনা,
শুধু মনে হতো তোমাকে ছাড়া আমার জীবন শূন্য।
সত্যিই দেখনা আজ আমি কেমন শূন্য হয়ে গেছি,
তোমাকে ছাড়া যেন নিষ্প্রাণ এক মানুষ আমি,
প্রাণ আছে কিন্তু অক্সিজেনের ঘাটতি।

বছর চারের পর খবর পেলাম ফিরেছো তুমি দেশে,
তাইতো খবর পেয়েই লিখলাম আমি এই চিঠি।
জানি ভুলে গেছো আমায় তবু মনে করিয়ে দিলাম,
আমার কিছু পুরানো স্মৃতির অ্যালবাম তোমাকে পড়তে দিলাম।
যদি ভালো লাগে পুরানো অ্যালবামের রূপ দিয়ো নতুন বাস্তবে,
যদি খারাপ লাগে তবে ছিড়ে ফেলো স্মৃতির এই পুরানো অ্যালবামটিকে।
পারলে পুড়িয়ে দিয়ো যাতে বারবার ফিরে না আসে স্মৃতির পটে ভেঁসে।

শেষবারের মতো বলি তবে কোনো অ্যালবামে নয়,
কল্পনায় নয়,অতীতেও নয়,স্মৃতিতেও নয়, বাস্তবেতেই ভালো থাকো তুমি।
ভালো রাখো তাকে,
সত্যি সত্যি ভালোবেসেছো যাকে,,,,।।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top