মহামারী ও একটি জীবনের গল্প শোয়েব ইবনে শাহীন

যখন দেখবে মিলিয়ে গেছে, আবছা নীল জোৎস্না ;
ভেবে নিও আমিও হারিয়ে যাচ্ছি কালো মেঘের আড়ালে।
ভীড় করবে জানি তোমার মনে সহস্র স্মৃতি,  কিন্তু কি আর করা….!
বুঝে নিও ; শোকে অচেতন পৃথিবী আমায় টেনে নিয়ে যাচ্ছে তার আচ্ছাদনের অতলে।

কষ্ট পেওনা!  ঠিকই রয়ে যাবো তোমার অন্তরে…
ভুল বুঝো না!  আমি স্বেচ্ছায় বন্দী নই আজ ভয়াবহ এই গহ্বরে!
বাস্তবতা আমাকে পড়িয়ে দিয়েছে হাতকড়া ;
রক্তভেজা হৃদয়ে আমি আজজ দিশেহারা।

নিষ্ঠুর মহামারীতে ছেয়ে গেছে পৃথিবী,
মৃত্যু আর মৃত্যু!  চারিদিকে – এরই মাঝে আমিও সব মায়ার বাঁধন চিরে চলে যাচ্ছি।

দেখা হবে ওপারে!  নিশ্চিত জেনে রেখো,
স্বর্গে আমাদের জীবন কেটে যাবে আনন্দে-নির্ভয়ে ; তুমি দেখো!

বয়ে বেড়াতে হবে না ব্যর্থতা ‘র গ্লানি,
টেনে নিয়ে চলতে হবে না আর অভাবের ঘানি।
মোকাবিলা করতে হবে না তিক্ত ভাগ্যের সাথে,
থাকতে হবে না আর দুর্দশা’ র দিনে ; অসহ্য দুশ্চিন্তার রাতে।

আমি না থাকলে তোমার সীমাহীন কষ্ট হবে জানি,
তবু দৃঢ় বিশ্বাস আমার; আমার শেষকথা রাখবেই তুমি!

জয়ী হবে জীবনে…একটু কষ্ট করে বেচে থাকো।
ভাগ্য যখন আমাকে নির্বাচিত করেছে এখন যে যেতেই হবে ; অল্প সময়ের পৃথিবীটাতে একটু ধৈর্য ধরো…!

সত্যি একসময় রাত পেরিয়ে ভোর আসবে,  স্নিগ্ধ সকালে অবাক পানে সেদিন চেয়ে দেখোগো মায়াবিনী;
সাদর অভ্যর্থনা জানিয়ে ,  অন্তহীন সুখের জগৎে তোমায় নিয়ে যেতে এসেছি আমি…!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top