মে দিবস

মে দিবস
জাহাঙ্গীর চৌধুরী

 

শ্রমিক শোষক ধনিক বনিক রক্তচোষা বাঘের মতো।
ওদের ভোগবিলাস অশেষ,
পৃথিবীর তিনভাগ গ্রাসিত সিন্ধুর মতো।
খোঁজে আবাস চন্দ্রদেশে আরাম-আয়েশ তরে,
চাল ভেঙে বৃষ্টি পড়ে শ্রমিকের কুঁড়েঘরে।
১৮৮৬ সনে চেয়েছিল সীমিত শ্রমঘন্টা ও একমুঠো অশনে বাঁচার অধিকার, জড়ো হয়ে শিকাগোর ‘হে মার্কেট’ চত্বর।
নিশ্বাস নিঃশেষ করলো পাষণ্ড সরকার, এগারো বিপ্লবী নেতার।
না ওরা মরেনি ইতিহাসের পাতায় অমর,
মিছিলের ব্যানারে হেঁটে বঞ্চিত শ্রমিককে করে অগ্রসর।
ধনিক বনিকের শিরে ঘুরে শ্রমিক নির্যাতন প্রথা,
ওরা ভাবে না শ্রমিকের হাঁড়ভাঙা খাটুনির কথা।
ওদের জ্ঞান থেকেও অজ্ঞান, জাগ্রত থেকেও করে নিদ্রার ভান।
এ পৃথিবীর শৈল্পিক মনোহরতায় যাকিছু অর্জন সবই শ্রমিকের শ্রমে বাস্তবায়ন।
বাইশ হাজার শ্রমিকের বাইশ বছরের গতরের নোনাপানি,
লেগে আছে তাজমহলের পাথরের ভাঁজে ভাঁজে সবাই জানি।
বিশ্বে মহান শ্রমজীবী কৃষক শ্রমিক কুলি মজুর মেহনতী মানুষের দল, সবাই অর্থনৈতিক চাকার বল।
ওহে ধনিক বনিক মহাজন মে দিবস করো স্মরণ,
শ্রমিকের অন্ন বস্ত্র বাসস্থান অধিকার করো না আর লঙ্ঘন।
হে মেহনতী মানব ভেঙে করো চুরমার,
সকল শোষকের দর্প অহংকার।
তোমরা কর্মশক্তি শ্রমে অকুতোভয়, তোমরাই করবে বিশ্বজয়।।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top