শপথ

 16 total views

শিরোনাম-শপথ
কলমে-সুতপা ব‍্যানার্জী(রায়)

তাকে দেখেছিলাম উড়োজাহাজের খোলের মধ্যে,
আকাশ যেমন আকাঙ্ক্ষা মিশিয়ে দেয়,
রামধনু যেমন মনে সাত রঙ ছড়ায়,
সেরকম সেও নিটোল ভালোলাগায় ভরিয়ে দিল।
তার আসমানী কোট থেকে বেরোচ্ছিল চাঁপার গন্ধ,
গন্তব্যে পৌঁছে হেঁটে চলে গেল আপন কোলাহলে,
তাকে আবার দেখলাম কর্মজগতের আঙিনায়,
আলাপ হল উর্ধ্বতন কর্মচারী হিসেবে নিটোল দূরত্বে,
প্রতিটা প্রজেক্টের নিখুঁত সম্পাদনে সে এক কর্মবীর,
নতুন নতুন ভাবনা যেন তার বাঁ হাতের খেলা,
সপ্রশংস উল্লেখে লাজুক হাসিটিও ভারী চমৎকার।
এরপর আবিষ্কার করলাম এক আকস্মিক নৈকট্যে,
প্রিয় ভগিনীর সঙ্গী হল ধুতি, জোড় আর টোপরে,
ঈর্ষা করলাম ভগিনীর সৌভাগ্যের রাঙানো সিঁথিকে,
সেই সম্পর্কের অনুসন্ধানে দেখলাম অপরাজেয়
সে পুরুষের ঔদার্য আপন আঙিনাকে স্পর্শ করে নি,
সে ঘরের জানলায় বাইরের আলো ঢোকা বারণ,
সামান্য হইচই সেখানে বেলাল্লাপনার নামান্তর,
ভগিনীর দেহ শীর্ণ হল, জৌলুসহীন পরাধীন জীবনে,
ক্রমে স্বাধীনতা চাওয়ার অপরাধে কালশিটে পড়ল,
শরীরের নানা ভাঁজে, দগদগে ছ‍্যাঁকায় ভরল শরীর,
আমার ঈর্ষা পরিণত হল মায়ায়, মুখোমুখি যুদ্ধে,
অপরাজেয় পৌরুষকে পরাজিত করবার প্রয়াসে,
দূরের সর্ষে ক্ষেতকে এখন শিয়ালকাঁটা বলে চিনেছি,
প্রিয় ভগিনীর সম্মান রক্ষা এখন দিনবদলের ব্রত।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *