অলীক সুখ  –  ছন্নছাড়া
অলীক সুখ

অলীক সুখ – ছন্নছাড়া

  • Post category:কবিতা
  • Post comments:0 Comments
  • Post last modified:November 25, 2020
  • Reading time:1 mins read
বুকের পাঁজর মাঝে যারে দিয়েছিলাম ঠাঁই,
তবু কেন তাঁর কাছে যাতনা বারে বারে পাই?
না জেনে পরিচয় দিলাম ঠাঁই যারে  আপন মনে,
মোর পরিচয় দিয়ে পরিচিতি দিলাম সবার সনে।
সেই কিনা অবশেষে ঠেলে দিল আপনারে,
যাতনা স্বরূপ অসীম সাগর মাঝারে।
তবে কেন এসে মোর ধরেছিলে হাত?
যদি দিতে নাহি পার জীবন মরণের সাথ।
জানি তব ঘৃণা আজ ভুলিয়েছে সকল সে সব!
ঘৃণায় পরেছে ঢাকা , চাপা পরে গেছে ভালবাসার রব।
তবু কি পরে না মনে? মোর হাতে রেখে হাত,
অঙ্গীকার করেছিলে ছাড়বে না মোর সাথ।
ক্ষুদ্র স্বার্থ আজ এতটাই বড় হল তোমার সনে-
হয়ত আমিই ভুল, এ বাসনাই ছিল চিরদিন তব মনে।
সুযোগ বুঝে খাঁচা টারে করে দিয়ে খান খান,
উড়ে যাবে সেথা, যেথা তব আপনার স্হান।
বুঝিতে করেছি ভুল, সে আমার দোষ,
সময় পেরিয়ে এসে তাই করছি আফসোস!
মান দিয়ে যারে দিলাম ঠাঁই মনের ঘরে,
সে দিল ফিরায়ে সব, অপমান ভরে।
মোর মনে জায়গা তাঁর বড্ড অল্প, ভেবেছিল সে,
নাপসন্দ তাই , ভেঙে খাঁচা উড়ে গেল অসীম আকাশে।
ভাঙা খাঁচা মোর আজ দেখি ধূলায় লুঠায়,
মুক্ত বিহঙ্গ সে আজ, ডানা মেলে উড়িয়া বেড়ায়।
সার্থক হোক তোমার স্বপন যত ছিল বন্দি আমার খাঁচায়,
পরাণের যত ব্যথা ভুলিব,  তোমার সুখের বাঁচায়।
আমার পাঁজর ভেঙে যদি হও তুমি আরও সুখী,
তাতেই আমার সুখ,  হব না কখনও আমি দুঃখী।
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply