তত্ত্বকথার ঝুড়ি  – গোবিন্দলাল হালদার

তত্ত্বকথার ঝুড়ি – গোবিন্দলাল হালদার

  • Post category:কবিতা
  • Post comments:0 Comments
  • Post last modified:December 14, 2020
  • Reading time:1 mins read

১.
পদক্ষেপ দেখে নাই পায়ের তলায় পৃথিবীর দূরত্ব
কতদূর হেঁটে গেলে খুঁজে পাবো আমার আমিত্ব  ।। 
২.
দৃষ্টির ক্যামেরাতে সব ছবি নাই
থাকলে পৃথিবীর ছবি গুলো চাই ।। 
৩.
লেখার জন্য জন্ম তোমার কলম তোমার নাম 
বলতে পারো মানুষ গাইবে শ্রেষ্ঠ সে কোন গান ।। 
৪.
দাগের বাইরে দেখলে দু’চোখ দেখবে শুধু গুণ্য
আমার দাগের বসত ঘরে গণিতশাস্ত্রের শূণ্য  । 
৫.
অফিস পাড়ায় হিসাব করেন হিসাব রক্ষক বাবু
নিজের হিসাব দেখাও বলায়, চিন্তা জ্বরে কাবু ।। 
৬.
চাপে চাপে হ্যাণ্ডেল চেপে নলকূপে পাই জল 
হৃদয় নদী বিরজার জল স্বাদে সুনির্মল ।। 
৭.
একই আলো আমার ঘরে তোমার ঘরেও তাই 
ভেদাভেদের ঝামেলাটা মিছে বাধাই ভাই ।। 
৮.
যোগ- বিয়োগ এই দু’টো চিহ্ন পরস্পরে পুষি 
যোগ লাল আর বিয়োগ সাদা উভয় জনই খুশি  ।। 
৯.
সেদিন শক্তি ভেঙে হলো অসীম কণা 
ছিটকে পড়া কণাগুলো কিছুই জানে না  
কোথায় যাবে,কোথায় হবে অস্থায়ী ঠিকানা ।। 
১০.
জাগলে তো ভালোই হতো আজও পারে ঘুম 
উঠে এসো আলিঙ্গন দেই ; মুখে আঁকি চুম ।। 
১১. 
যার ভেতরে তুমি আমি তারই হিসাব করি 
দৃষ্টির মঞ্চে ঝুলছে দেখি আমার নামে দড়ি  ।। 
১২.
রাখার কথা মানুষ বলে ; রাখতে পারি নাই 
যা রাখা তার সাথে আমি হাঁটিয়ে বেড়াই  ।।
১৩.
এই নদীতে ডুবটা সেরে ঐ নদীতে যাই 
ডুব বিধানের বিপরীতে ঠাণ্ডাকে লাগাই ।। 
 ১৪.
মনের আয়নার সামনে দেহ দাঁড় করিয়ে দেখি 
কতটুকু আমার আমি ; আর কত তার মেকি ।। 
১৫.
দিন শেষে অবশেষে কত করি আরতি 
নিয়ে যাও গাড়িঅলা দূর পথের সারথী।। 
১৬.
অবুঝ এ মন রোজ রাখে না খোঁজ 
হিসেব খাতায় জমা খরচ কখন করে ভোজ  ।। 
১৭.
আমি আমায় চিনি না ভাই আরকে চিনি কিসে 
চিনাচিনির হাট বাজারে হারিয়েছি দিশে  ।। 
১৮
ভাবের গাঙে ডুব দিয়ে তুই দেখ না মন 
সূর্য ডোবার সাথে ডোবে রূপ যৌবন ।।  
১৯.
একতারার দুই প্রান্তে আছে তারের গেঁড়ো 
ও ভোলামন কোন কারণে তারটি তুমি ছেঁড়ো  ।। 
২০.
মাঝে মাঝে এমন ভাবি ভাবনা করতে হয় 
আমার মাঝে আমিটাকে কেমনে করি জয়  ।। 
চরপাড়া,বেড়া,পাবনা
 
ঠিকানা : চরপাড়া, বেড়া,পাবনা 
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply