E-লুপ্ত উপন্যাস – মুক্তি দাশ
MUKTI DAS

E-লুপ্ত উপন্যাস – মুক্তি দাশ

  • Post category:প্রবন্ধ
  • Post comments:0 Comments
  • Post last modified:December 18, 2020
  • Reading time:1 mins read

 

মাত্র ছাব্বিশটি অক্ষর সম্বল করেই ইংরেজি ভাষা আজ আন্তর্জাতিক মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত। এবং সারাবিশ্বে একমাত্র ভাববিনিময়কারী ভাষা হিসেবে স্বীকৃত। পৃথিবীর বহু উল্লেখযোগ্য ধ্রুপদী সাহিত্য এই ভাষায় রচিত ও অনূদিত হয়েছে-এই ছাব্বিশটি অক্ষরের দাক্ষিণ্যেই। কেবলমাত্র আমেরিকান সাহিত্যিক আর্নেস্ট ভিনসেন্ট রাইট (Ernest Vincent Wright)-এর লেখা একটি উপন্যাস এর বিরল ব্যতিক্রম। উপন্যাসটির নাম Gadsby (গ্যাডসবাই)।

কল্পবিজ্ঞানাশ্রিত এই উপন্যাসের বিশেষত্ব এইযে, এটি রচিত হয়েছে ইংরেজি বর্ণমালার পঁচিশটি অক্ষরের সাহায্যে। যদিও আস্ত বইখানায় শব্দসংখ্যা সাকুল্যে পঞ্চাশ হাজার একশো দশটি। কিন্তু একটি অক্ষর পুরোপুরি অব্যবহৃত। বর্জিত সেই অক্ষরটি হলো E (ই)। যথেষ্ট মুন্সিয়ানার সংগে এবং সচেতনভাবে ও সুকৌশলে একটি অক্ষর বা বর্ণকে এড়ি্যে গিয়ে সার্থকভাবে সাহিত্যসৃষ্টির এই পদ্ধতিকে বলে Lipogram (লিপোগ্রাম)।   

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে ১৯৩৯ খ্রীষ্টাব্দে Gadsby প্রথম পুস্তকাকারে প্রকাশিত হয়। উপন্যাসটি শেষ করতে লেখকের সময় লেগেছিল একশো পঁয়ষট্টি দিন। দুশো ষাট পাতার বই। প্রকাশকালে বইটির বিক্রয়মূল্য ছিল মাত্র তিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় সেই সময়ের নিরিখে যার মূল্য ছাব্বিশ টাকার মতো। অধুনা দুষ্প্রাপ্য এই বইখানির মূল্য প্রায় একহাজার ডলার। সহজেই বোঝা যায়, বইটির দুষ্প্রাপ্যতা এবং অভিনবত্বই এরকম আকাশচুম্বী মূল্যবৃদ্ধির কারণ।

অভূতপূর্ব এই উপন্যাসের সমালোচনা প্রসঙ্গে তদানীন্তন পত্রিকা “লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস” লিখেছিল : “Try to write a single ten-word sentence without an ‘e’, and you will get an idea of the task he set himself.”

মুক্তি দাশ

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply