২১ এর কবিতা – ১৫.০১.২০২১

story and article

ক্ষয়ে যাচ্ছে সমাজের মগজ – মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ

গোল টাকার গোলচক্করে বিভৎস সুড়ঙ্গ!
লাল,নীল গেলাসে উপচে পড়া নেশার
বিভ্রান্ত যৌবন—প্রগলভা মোটামাথারা
খোঁড়াখুঁড়িতে ব্যস্ত নগরে।

চিৎকারের ভাষাটাও হারিয়েছে
আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা,
এবং সীসার বিষে ঠাসা বাতাস নিয়ে
ফুসফুসের লেন বাইলেনে জীবাণুর জট,

নরকের দরজা খুলে দিয়ে খাণ্ডব বাণিজ্যের
রমরমা বাজার পেতেছে ওপেক,ন্যাটোর
স্টেইনলেস ইশতেহার।

বিতর্কটা জমজমাট বরাবরই পেন্টাগন টাইপ,
ঈগলের নখর মাথার ওপরের মেঘগুলো খুবলে নিয়েছে।

রূপের বাণিজ্যে ফরিয়ার নীলকাঁচগুলোর পশ্চাতে
তাদেরই বিকৃত কোলাজ;
থেরাপিতে আর সুবিধে নেই।

পেশির কোষে কোষে মানসিকতার সাথে ঠোক্করে ঠোক্করে গেল পঞ্চাশটি বছর,

এখানে চারপাশে ইটের পাঁচিল
ইটের পাঁজর থেকে রক্তাক্ত বিবৃতির ঝড় আসে, প্রতিদিন একটি একটি নীলাভ হাত, মুঠোর আগুনে পোড়াতে আসে হাজার তনুর মিছিল।

mdshohidullah

 

মন যেন মানে – বিশ্বনাথ পাল

রাগের বশে কেউ না বসে
করলে বকবকম।
পাবে না কেউ আমায় যেন
ছুটবে শুধু দম।
হরেক কথার হরেক রঙ
হরেক ব্যথা তার
না বুঝে কেউ বল কেন
শুধুই আমার আমার।
মনকে নিয়ে মাতোয়ারা
তুমি আমি যারা
বাইরে যেতে একপায়েতে
রয়েছি আজ খাড়া।
থাম গো মানিক, থাম খানিক
হয়ো না উতলা,
ভয়ের টুঁটি ধরতে ছুটি
যেও না একলা।
বিশ্বজুড়ে কোভিড ঘোরে
দোসর নতুন স্ট্রেন
বাড ফ্লু ও সুযোগ বুঝে
বাজায় সাইরেন।
সাবধানে থাক বন্ধুরা
থাক সাবধানে
ভারচুয়ালি কাজে
মন যেন মানে।

biswanath pal

 

 

কারা ওরা – সত্যেন্দ্রনাথ পাইন

আমার কাজের ভেলা যায় যে ভেসে
যারা ধরবে বলে দূরে এসে মেশে
কর্ম হারা গতিহারা থাকে পথের ধারে
আজকে তারা জনহীন ঘরে
খোঁজে জীবন প্রান্তে নীরব চুল্লি তারে

নীরবে শুনি মাথাটা করে নিচু
যাওয়া আসা চলে মুছে যতকিছু
কারা পলে পলে দুয়ার বন্ধ ক’রে
মনোহরণ রোদের স্বপ্নে দাঁড়ায় পথের ধারে
হারায় চিত্ত, হারায় ছায়া রসায়ন খুঁজি!!

 

satyendranathpyne

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *