২১ এর কবিতা ২৪.০১.২০২১

story and article

তোমাকে হারিয়ে – সুকান্ত মজুমদার

সত্যি তোমার গৈরিক মন
কেঁদেছিল মোদের অপ্রতুল দুঃখে?
ভেসেছিলে পালহীন নৌকায়
উত্তাল যন্ত্র‌ণার পরাধীন সাগরে –
সময়ের অতিবাহিত রসনায়
তবে কেন আজ তুমি অনন্য
অতিকায় বিরাট অতীত নও?
যে পথ তোমার পাথেয় ছিল
আজ সে পথ আগাছায় ম্লান,
রাতদিন মুখরিত পেশাদারীদের
স্তবগানে, তোমার বিরাট অসন্মান।
তোমার রচিত দিশা হারিয়ে
পেয়েছি ভ্রুকুটি, নারকীয় স্বর্গধাম
ভুখন্ডের খন্ডিত দেহের যন্ত্র‌না –
জোৎস্নাময় প্রতিক্ষার বিস্তৃত তট
গন্তব্যহীন হেটে চলা,কুমন্ত্রণা।
মুখের আড়ালে সেই শাসনের
মুখ তেমনি অন্য ভাষায় কথাকয়,
অত্যাচারের নতুন আদলে
বদলের দলবল করেই চলেছে
মায়ের ধবল আঁচল ধুলোময়।

 

sukanta majumdar

 

 

 

চাষীর জীবন  – রতন বসাক
রোদে পুড়ে জলে ভিজে চাষ করে যায়
ফসল পাকলে পরে মন ভরে সুখে।
আশায় বাঁধে বুকটা খুশি ফোটে মুখে
হাটে গিয়ে বেচে দিলে চাষী টাকা পায়।
পায়েস করে পূজোর পরে সেটা খায়
ঘরে খুশির দিকের পাল্লা যায় ঝুকে।
ভরসা করে আবার স্বপ্ন জমে বুকে
মিটিয়ে দেয় সবার আছে যতো দায়।
বারো মাস খেটে যায় কষ্ট সহে চাষী
খরা বন্যার ভয়টা বুকে নিয়ে চলে।
সব ঠিক থাকে যদি দেখা যাবে হাসি
সবার খাদ্য যোগায় তাই মিত্র বলে।
করুণ সুরে আজও বেজে ওঠে বাঁশি
খরায় সুখা বন্যায় ভাসে যদি জলে।
 

Ratan Basak

 

 

 

স্বাধীনতার জন‍্য
মহীতোষ গায়েন
(দেশনায়ক সুভাষচন্দ্রের প্রতি
শ্রদ্ধা জানিয়ে)

কথা ছিল,স্বাধীনতা এনে দেবে
স্বাধীনতা এলো,নিরুদ্দেশে বীর,
প্রত্যাশা পূরিত হয়নি আজোও।

স্বাধীনতা ভিক্ষার নয়,ছিনিয়ে
নেওয়ার,তুমিই শিখিয়েছিলে,
স্বাধীনতা এসেছিল অভিমানে।

কথা ছিল,স্বাধীনতা এলে
স্বাধীনতা প্রিয় মানুষের স্বপ্ন
পূরিত হবে,হয়নি আজও।

লোভ আর ঈর্ষার যূপকাষ্ঠে
বলি প্রদত্ত হলো মর্যাদার হীরে
স্বাধীনতা এলো ব‍্যথাদীর্ণ মনে।

শঙ্খ বাজছে,মাইকে জাতীয় সঙ্গীত
ঘরে ঘরে বীরপুজো শাশ্বত কাল ধরে,
পূর্ণ স্বাধীনতার জন‍্য তীব্র লড়াই আসন্ন।

Mahitosh Gকবি মহীতোষ গায়েন

 

 

 

স্বাতী কোচ্চারের – Never Before Had I
কবিতা অবলম্বনে
আগে কখনও – রণেশ রায়

আগে কখনও আমি
শ্রবনে আমার শুনি নি
এত সরব পাতা ঝরার মর্মর ধ্বনি
পাখির কোলাহল আকাশে
রাত দিনের ফারাক ছিল না দৃষ্টিতে।

আগে কখনও আমি
তাকাইনি  আকাশ পানে
দীর্ঘক্ষণ ধরে
দৃষ্টি দিই নি শূন্য গৃহকোনে
নজর ছিল না প্রতিঘন্টার খবরে।

আগে কখনও আমি
ভাবিনি কি আনন্দ ঘরে
প্রিয়জনের মধুর মিলনে
নিভৃত একান্ত আশ্রয়ে
কি মধুর ভালোবাসার ছোঁয়া লাগে অন্তরে।

আগে কখনও আমি
ভীত হই নি এ  ভয়ঙ্কর ভয়ে
ব্যথা দুঃখে কাঁদিনি মরমে
ভবিষ্যতের অনিশ্চয়তার এ কর্কশ বার্তা
এত গভীরে বেঁধে নি আমাকে।

আগে কখনও আমি
দুনিয়াকে এভাবে দেখি নি
প্রিয়জনকে হারাবার ভয়ে  মরি নি
এক হয়ে লড়ার প্রয়োজন বুঝি নি।

আগে কখনও আমি
বহুজনের এ কন্ঠস্বর শুনি নি
আমাকে  অস্থির না হতে বলেছে
বলেছে ধৈর্য ধরে লড়তে
হতাশ না হতে।

Ranesh Ray

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *