ক্ষনিকের প্রেম কাহিনী – শ্রী রাজীব দত্ত

 

সেদিন রাত্রি বেলা অফিস থেকে বেরোতে দেরী হল। 9.54 বাসটা মিস করে গেছি। অগত্যা দশটা কুড়ি বাস ধরার জন্য দাঁড়িয়ে রয়েছি বাসস্ট্যান্ডে । মিনিট দশেক বাদে একটি সুন্দরী ললনা বাসস্ট্যান্ডে এসে দাঁড়ালো।

এক দেখাতেই যেন মনের ভেতর হাওয়া পরিবর্তনের ইচ্ছা হল। অপরূপ দেখতে মেয়েটাকে দেখে প্রেমের জোয়ার যেন দোলা দিয়ে উঠলো আর সেইসঙ্গে অনেকক্ষণ ধরে দেখতে থাকলাম , ইতিমধ্যে বাসটাও চলে এল দুজনে একসঙ্গেই উঠলাম বাসে। বাসে উঠেও আমার মনটা আনচান করতে থাকলো।

বেশি রাত হয়ে যাওয়ার ফলে আজ বাসে খুব একটা লোকজন নেই হয়তো 10 জন 11 জন মত হবে । ওই কিছুক্ষণ যেন আমি আমার অতীত, বর্তমান, ভবিষ্যৎ সব ভুলে গিয়ে একাকীত্বে নিজেকে তার প্রেমে আত্মসমর্পণ করার চেষ্টা করছি।

ইতিমধ্যে বাসটা আরো ফাঁকা হয়ে গিয়েছে, সেও বেশ কিছুক্ষণ ধরে আমার দিকে তাকাচ্ছে দুজনের মধ্যে চোখাচোখি হচ্ছে। ভাবলাম এবার সাহস করে বলি মনের কথাটা, কিন্তু একটা ফোন যেন সব স্বপ্ন, মায়াজাল চূর্ণ-বিচূর্ণ করে দিল। অপর দিক থেকে আমার মেয়ের গলা।

সে আমাকে অনুরোধ করছে আসার সময় যেন তার পছন্দের ক্যাডবেরিটা আনা হয় । ব্যাস হয়ে গেল প্রেমের ইতি। আবার মনে পড়ে গেল, আমি বিবাহিত। তখনই বুঝলাম মাঝে মাঝে আমারও হ্যাংওভার হতে শুরু করেছে। আর ভবিতব্যের লীলা এটাই, পরের স্টপেজ থেকে আমার সুন্দরী ললনার স্বামী ও বাসে উঠলো ।

যদিও দু-একবার দেখেছি ফোনে কথা বলতে তা বলে আমি ভাবি নি আমার ক্ষণিক কল্পনার সুন্দরী আমার মতই বিবাহিত।
পরের স্টপেজ এই আমায় নেমে যেতে হলো,
আর আমার ক্ষনিকের প্রেম পর্ব সমাপ্তি ঘটলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *