Jubak Anarjo

 120 total views

পুস্কুনির পাড়ে একদিন চান্নি পসর রাইতে
যুবক অনার্য

তোমার লগে দেখা নাই বহুদিন
শ্যাষবার দেখা হইসিলো
বলদা গার্ডেনের কাছে র‍্যাংকিন স্ট্রিট
তোমার লগে যে লোকটা আছিলো
হেই লোকটাই নাকি তোমার স্বামী
দেখতে ভালাই
মাথায় টাক
এইটা কুনু সমস্যা না
মেলা ট্যাকার মালিক
ট্যাকাই আসল কথা
তুমি সেই স্বামী লোকটার লগে
আমারে পরিচয় করাইতে গিয়া
কেমন যেনো একটু মেলান
হইয়া গেছিলা
তোমার অমন অসহায় চেহারা দেইখা
আমিই কইলাম- আমি রইসুদ্দি
গেরাম মাইন্নারচর
জরিনাগো গেরামের লগেই- কইতে পারেন পোরতিবেশি গেরাম।
উনি অবাক হইয়া জিগাইলেন:
জরিনা কে?
আমি ফাপড়ে পইড়া গেলাম
ভাগ্যিস তুমি কী মনে কইরা কইলা –
বাসায় আমাকে আদর করে জরিনা বোলে ডাকতো।
উনি কইলো : ও মাই সুইট হার্ট
বড্ড মজা পেলাম জেনিস।
ভাবলাম জামাইয়ের ট্যাকা থাকলে
জরিনা হইয়া যায় জেনিস
কথায় কয় বড়োলকের বিরাট কারবার
জরিনারে জেনিস না বানাইলে
বিরাট কারবার ক্যামনে হইবো!
তোমার স্বামী ভদ্দরলোক
‘বাসায় আসবেন’
কইয়া আমার সামনেই
তোমার হাত ধইরা কইলো: জেনি
লেট হয়ে যাচ্ছে
হারি আপ।
আমি কিছু একটা কইতে নিসিলাম
কিন্তু তার আগেই তোমার হাত ধইরা
টাক মাথা ঝটকা টান মাইরা
তোমারে লইয়া উধাও হইয়া গেলো।
অই মুহুর্তে আমার মনে হইলো
ট্যাকা থাকলে ঝটকা টান
মারা যায় যখন তখন
ট্যাকা হইলো দুনিয়ার খোদা- কথাটা হাচাই।

তারপর বহুদিন কাইটা গেলো
দেখা হইলো না আর
দ্যাশে আছো না বৈদ্যাশে গেছোগা
কিছুই জানি না
আজ সকাল থেইকা তোমারে খুব
মনে পড়তাসে
খুব বেশি মনে পড়তাসে পুস্কুনির পাড়ে একদিন চান্নি পসর রাইতে
তোমার দুই হাতে আমার মুখ ধইরা কইসিলা- তুমি কি আমারে কুনু দিন
ছাইড়া চইলা যাইবা!
গেলে কিন্তু আমি তোমারে
ডাইরেক্ট খুন কইরা ফালামু।
আমি হো হো কইরা হাসতে হাসতে
কইসিলাম:
তোমার হাতে খুন হইলে শহীদ হমু
আর বাঁইচা থাকলে গাজী।

জরিনা, তুমি আমারে খুন করো নাই বোইলা বাঁইচা থাকা আমার হইলো না আর
পুকুর পাড়ে এখনও চান্নি পসর রাইত নামে
কেউ কাউরে খুন করে না
শুধু জরিনারা জেনিস হইয়া যায়
টাকারে খোদা বানাইতে না পারলে
ঝটকা টানের সুখ পাইবার আশায় রউসুদ্দিগো লইগা অপেক্ষা করে না
নরম কুনু হাত
রইসুদ্দি বাঁইচা থাকে হাঁটু ভাঙ্গা দ- এর
লাহান
জীবনভাঙ্গা হইয়া পুস্কুনির পাড়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *