Mayuri Mitra

 15 total views

আয় বাবা দেখে যা –  ড . ময়ূরী মিত্র

 

বৃষ্টি শেষ হয়েছে | গাড়িঘোড়ার আওয়াজের  মাঝেই  দেবস্থানের আজান | যদিও রাত তবু বোধ হচ্ছে , ধুলোজমা পাতাগুলো খানিক সাফ হয়েছে |  ঢুলুঢুলু আঁখি মেলে মেঠো   গাভী দেখেছেও তা কিছুক্ষণ —- বিকেলের বৃষ্টি | সৌন্দর্যের জন্য কিনা জানি না তবে কাছাকাছি থাকা ফ্ল্যাটবাড়ির সবাইকে সেদিন দেখেছিলাম বর্ষণমুখর বৈকাল  দেখতে |
             বৃষ্টি একটু থামল সাড়ে ছটা নাগাদ | বেশি আকাশ দেখার বাসনায় সাতটা নাগাদ নিচে নেমে দেখি ওই ভেজাভেজা  সন্ধেতে    পাড়ার একটা common  ছেলে  একমনে মোবাইল  গেম খেলে যাচ্ছে | রোজই খেলে | নয়  মারপিট  নয় গাড়ি ঢুসঢুসির গেম | একদিন  বলেওছে আমায় — বোঝো না কেন আন্টি ? এ তো common গেম !
               নানা ফর্মুলায় মানুষ মারার খেলা |  উঁকি মেরে দেখলাম —  বর্ষার মধ্যেই খুলে বসেছে একটি   নতুন দামী মোবাইল এবং সেখানে আজকের খেলাটাও  বিশাল অভিনব   |  সেদিন অন্তত তাই মনে হয়েছিল |
                         মোবাইল স্ক্রিনে চোখ রেখে  মুখে মুখে  মাতৃভাষাতেই ইন্সট্রাকশন দিচ্ছে সে  ছেলে — বন্দুক দিয়ে মার  | শুনেই মোবাইলের পুতুল বন্দুক দিয়ে মেরে দিচ্ছে তার  পুতুলসাথীকে | আবার বলল — ডানদিক ধরে দৌড়ো |
            —-পুতুল দৌড়চছে মন দিয়ে | —–”  হ্যাঁ দ্যাখ ওদিকেই লুকিয়েছে লোকটা ! পেয়েছিস ? হ্যাঁ এই তো ! Good ! এবার দুটো ঘুষি মার | আরে নাকে নাকে ! মার আরো মার | মেরে ফেল |” —-স্ক্রিনে বেপরোয়া ঘুষি চালাচ্ছে পুতুল | মরছে আরেক পুতুল !  নাম জানি না খেলাটার |  জানতে চাইও নি |
              এক হঠাৎ আসা টুকরো বাদল , তেজি প্রকৃতি ,সিক্ত মানুষের  উছল আলাপ কিছুই কোমল  করতে পারল না শিশুর খেলার পুতুল  মারার তাপটাকে  |  আমি দেখলাম — একটি পদ্মকিশোর রুক্ষ হয়ে থাকল  | খেলাচ্ছলে একসন্ধেতে  চোদ্দবার  একই  মানুষকে মেরে ফেলল বহুবার | বহুভাবে |  — মেরে মেরে  মাটির পরে শুইয়ে দিল   | মোবাইল যত দামী , দুই পুতুলের মারামারি তত ঝকঝকে  স্ক্রিনে | মানবিক মুখ অন্তর্হিত | শিশু যে মানবগোষ্ঠীর অন্তর্গত এ নিয়ে বোধহয় ভাবতে চান না বাবা মা |
            মনে পড়ে — বাগাডুলির একটি গুল্লি হারালেই মা ছুটে যেতেন নতুন বাগাডুলি কিনতে | যেবার ঘটে জমানো পয়সা শর্ট হত নেপথালিন ছেঁচে তৈরি করতেন গুল্লি | বলতাম — এত অকুলিবিকুলি কেন মা ? এত আর হোমটাস্কের খাতা ফুরিয়ে যাওয়া নয় যে আজি কিনতে হবে ! এতো খেলা মা ! নাহয় কাল যেও বাগাডুলি কিনতে  ! মা হাসতেন  –” এ পড়ার চেয়েও দামী খেলা ! এ খেলায় চোখ এক বস্তুতে স্থির হয় |  মন  পোক্ত হয়   | আজ এ খেলা  খেললে কাল ঝড়বেগে অঙ্ক করবি  | – একটাও ভুল হবে না দেখিস |
                বৃষ্টি কিংবা  শীতের সন্ধেতে সে খেলা যে কী জমত ! –আজ সব মনে পড়ে যাচ্ছে মা ! আর কিছুদিন বাদে তোমার কথাগুলো  ছবি হয়ে যাবে মা  | অক্ষরছবি |
           ব্রাভো আজকের  বাচ্চা  ! ব্রাভো তোদের মা বাপেরা !  ক্যাশ না থাকে তো থামিস না | কার্ডে কিনে দে মোবাইল  আর বাচ্চার সাথে বসে কুখাদ্য পিজা গিলতে গিলতে   স্ক্রিনে  দেখ খুনোখুনি  | বাচ্চাকে শোনা  মানুষের মানুষ মারার নির্দেশ  |
        থেমে যাক বৃষ্টি | জলহীন   পৃথিবীতে দৌড়োক          খুনি  বাচ্চা |
    বদদিমাগ | রক্তচক্ষু | সানমাইকা হাসি
পুনশ্চ : দুবছর লকডাউনে ঘরটা তার জেল হয়ে গেছে কখন | টিভির baby চ্যানেল দেখতে দেখতে শব্দ দিয়ে সাজানো গল্পে মূর্তি কল্পনা করতে ভুলেছে সে আরো | বাবুরাম সাপুড়ে তারা শুনেছে কি কখনো ? সে সাপুড়ে ছবি হয়েছে হৃদয়ে | সর্বত্র আছে সে | এ চরাচরে আছে |
             প্রিয় বাবা মায়েরা আমার একান্ত অনুরোধ —-শিশুকে  আস্বাদ করতে দিন এই বিশ্বপ্রকৃতিকে | প্রাণী ও মানুষের সাথে  ভালোবাসা গড়ে দিন শিশুর | বুঝে দেখুন ভাই —সবই On Screen  হলে না দেখাকে বুঝবে সে কোন কল্পনা দিয়ে ?  একবার বিশ্বকবিকে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষাবিদ মেনে নিন | তাঁর কথামত শিশুর মনচোখটা খুলে দিন | খিলটা খুলে দিন | কেবল একটিবার |
বিনতি ব্যর্থ হলে কষ্ট পাব ভারী |
পরিশেষে : কোভিডের দু নম্বর ঢেউয়ের পর অভিভাবকদের লেখাটা পড়ার প্রয়োজন বেড়েছে বলে এই অধম শিক্ষকের বিশ্বাস |

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *