Ratan Basak

 87 total views

আলাপ করার প্রয়োজনীয়তা আছে । ”

কলমে – রতন বসাক

সমাজে আমরা কেউই একা বেঁচে থাকতে পারিনা । সুস্থ ও স্বাভাবিক ভাবে বেঁচে থাকতে গেলে আমাদের প্রত্যেককে প্রত্যেকের প্রয়োজন হয় । আর এটাই হলো সমাজ নীতি । একে অপরের সুখে-দুখে বিপদে-আপদে আমরা পাশে থাকার চেষ্টা করি । সমাজে থাকতে থাকতে আমাদের অনেকের সঙ্গে পরিচয় ও আলাপ হয় ।

আমাদের রক্তের সম্পর্কের নিজেদের পরিবারের কারো সঙ্গে তো সহজেই আমরা আলাপ ও পরিচয় করে নিতে পারি । কিন্তু এর বাইরেও আমরা জীবন পথে চলতে গিয়ে আরো অনেকের সঙ্গে আলাপ ও পরিচয় করে থাকি । হঠাৎ কোনো একটা ঘটনার সম্পর্কে এসে আমরা অনেক সময় দুজনে দুজনার সাথে পরিচিত হই । একে অপরকে ভালোভাবে জেনে নিই ।

কারো সাথে নতুন করে পরিচিত হবার পর তার সঙ্গে একটা সম্পর্কে আমরা এগিয়ে যাই । কোন সময় প্রেমের, কোন সময় বন্ধুত্বের কিংবা অন্য কোনো সম্পর্ক আমরা গড়ে নিই নিজেরাই । এর ফলে তখন থেকে দুজনে দুজনার ভালো-মন্দ আমরা বুঝতে শিখি । একে অপরের সাথে কথা বলে আমরা মনে শান্তি পাই । অনেক সময় সেই নতুন সম্পর্ক নিজের আত্মিয়ের থেকেও বেশি হয়ে যায় ।

আমরা পথে ঘাটে সবাই যে যার মত চলতে থাকি । যতক্ষণ পর্যন্ত না অন্যের সাথে আলাপ করা অর্থাৎ কথাবার্তা হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা পরিচিত হতে পারি না একে অপরের সঙ্গে । তবে কারো সাথে কথা বললেই যে পরিচিত হয়ে যায় তা কিন্তু নয় । দুজনের মনের মিল ও বারেবারে যতক্ষণ না পর্যন্ত কথাবার্তা হবে ততক্ষন কিন্তু পরিচিত হওয়া যায়না । সেই পরিচয়ের মধ্যে একটা ভালোবাসা থাকলে তবেই সম্পর্কটা গড়ে ওঠে ।

আবার সমাজে এটাও দেখা যায় যে কিছু মানুষ আছে যারা গায়ে পড়ে এসে পরিচিত হতে চায় ও বিভিন্ন রকম কথাবার্তা বলে । এর মধ্যে তাদের একটা গুপ্ত স্বার্থ থাকে । এইসব মানুষদের সাথে বেশি আলাপ না করা ও পরিচিত না হওয়াটাই ভালো । আসলে কারো সাথে কয়েকবার আলাপ করলেই তার মনোভাব বোঝা যায় ।

তবে সমাজে যত বেশি মানুষের সঙ্গে পরিচিত হওয়া যায় ততই ভালো । কেননা আমাদের কখন কি বিপদ আপদ এসে যায় ? তখন সাহায্যের হাতটা সহজেই পাওয়া যায় পরিচিত থাকলে আগের থেকে । এছাড়া পরিচিত ব্যক্তির সাথে আলাপ করলে মনটাও ভালো থাকে । আমি নিজে যতটা না জানি কোন কিছুর ব্যাপারে । তার চেয়ে বেশি জানা যায় কারো সাথে আলাপ করে ।

কেউ কোন কিছুর ব্যাপারে পারদর্শী হলে সে সহজেই সমাজে পরিচিত হয়ে যায় । পরিচয় কোন সময়ই বলতে পারেনা একটা মানুষ কি ধরনের ? সে যেমনই মানুষ হোক না কেন, আলাপ করার পরই বোঝা যায় যে সে কি ধরনের মানুষ । আর আলাপ করেই বোঝা যায় অন্যের মনের কথা । তাই একটা সুসম্পর্কের জন্য আলাপ ও পরিচয় অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত । আর এর জন্যই আমরা সমাজে সহাবস্থান করতে পারি সহজে ।

************

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *