Ratan Basak

 170 total views

” এদের কথা একটু ভেবে দেখা উচিত। ”
কলমে – রতন বসাক

আমরা মানুষ সমাজবদ্ধ জীব আর সমাজে থাকতেই ভালোবাসি। ধনী-গরিব, জ্ঞানী-অজ্ঞানী, ছোট জাত ও বড় জাত সব ধরণের মানুষ আমাদের এই সমাজে বসবাস করে। আমরা কেউই স্বয়ং সম্পূর্ণ নই কিংবা একা বেঁচে থাকতে পারি না। আমরা সবাই কিছু না কিছু কাজে পারদর্শী। এটাও সঠিক যে সবাই সব কাজ করতে পারে না।

সমাজে বাস করতে গিয়ে একটা সুন্দর স্বচ্ছ ও পরিষ্কার পরিবেশের আমাদের প্রয়োজন হয়। প্রতিদিন আমরা বিভিন্ন ভাবে আমাদের এই সমাজের পরিবেশকে নোংরা ও দূষিত করে থাকি প্রত্যেকেই। কিন্তু আমরা কেউই নিজের ঘর-বাড়ি ছাড়া বাইরের পরিবেশকে পরিষ্কার করি না। আমাদের বাড়ির বাইরের ড্রেন, ডাস্টবিন কিংবা অন্য কোনো যত নোংরা আবর্জনা পরিষ্কার যাঁরা করে তাদের বলা হয় সাফাইকর্মী, মেথর বা জমাদার।

এইসব কর্মীদের আমরা খুবই নিচু চোখে কিংবা ঘৃণার নজরে দেখি। এমনকি এদের কারও সাথে আমাদের ছোঁয়া লাগলে আমরা নিজেকে অপবিত্র ভাবি। এরাও যে এই সমাজের অপরিহার্য মানুষ তা আমরা ভুলে যাই নিজেদের অর্থ ও উঁচু জাতের অভিমানে। আমরা একবারও ভেবে দেখি না যে, এরা কত কষ্ট ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমাদের জন্য এইসব নোংরা কাজ করে থাকে।

এও দেখা গেছে যে ম্যানহোলে নেমে ড্রেন সাফাই করতে গিয়ে বিষাক্ত গ্যাসের প্রভাবে অনেকেই মৃত্যু বরণ করেছে। কাজটা হয়তো নোংরা কিন্তু কাজ তো কাজই হয়। কাজের বিনিময়ে তাঁরা অর্থ পায় ও তাঁদের পরিবারের ভরণ পোষণ করতে পারে। আমাদের একবার ভেবে দেখা উচিত, এইসব মানুষ যদি এই নোংরা কাজগুলো না করত; তাহলে পরিবেশের অবস্থা কী হতো? আমরা কী সবাই ওদের মতো এইসব নোংরা কাজ করতে পারতাম?

কে, কী কাজ করছে সেটা বড় কথা নয় মানুষটা যে কাজ করছে সেটাই হলো বড় কথা। এই সমাজে প্রত্যেকের কাজেরই আলাদা আলাদা মূল্য আছে। কোনো কাজই ছোট কিংবা বড় নয়। যে, যে কাজই করুক না কেন, সে যদি সঠিক ভাবে করে থাকে তাকে তার মূল্যায়ণ ও সম্মান করা উচিত। নিজেরাই নিজেদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে কাউকে অপমান করা উচিত নয়। তাঁর নিজের কর্ম ক্ষেত্রে সে সম্মানীয় ও অপরিহার্য।

সমাজে দেখা গেছে অনেক নিচু ও গরিব কিংবা সাফাই কর্মির ঘরের সন্তান খুবই মেধাবী। নিজের চেষ্টার বলে সে অনেক উঁচু পোস্টে কাজ করছে কিংবা দেশের জন্য অনেক মহান কাজ করে চলেছে। তাই যে যতই নিচু স্তরের কাজ করুক না কেন তাকে ঘৃণা করা উচিত নয়। এইসব কর্মী যদি নিজেদের কাজ বন্ধ করে দেয় কিংবা হরতাল করে বসে; তখন আমরা বুঝতে পারি যে এদের কতটা প্রয়োজন আছে আমাদের সমাজে। তাই এরাও যে সমাজ তথা দেশের জন্য কিছু ভালো কাজ করে চলেছে সেটা আমাদের সবার বোঝা উচিত।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *