Ratan Basak

 96 total views

” অনলাইনে শপিং করে সময় ও অর্থের সাশ্রয় হয়। ”
লেখক – রতন বসাক

সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে সবকিছুরই পরিবর্তন হয় এবং তাকে মেনে নেওয়াটাই সঠিক। আর তা না হলে নিজের মনেই নিজেকে কষ্ট পেতে হয়। তেমনই একটা পরিবর্তন আজকের যুগে দেখা যাচ্ছে সচরাচর। সেটা হলো বাজার করা অর্থাৎ কেনাকাটি ইংলিশে যাকে বলা হয় শপিং করা। যেটা এখন হচ্ছে অনলাইনের মাধ্যমে। আধুনিক যুগের মানুষ অনলাইনে শপিং করাটাকে বেশ ভালোভাবেই মেনে নিয়েছে।

ঘরে বসেই মোবাইলে কিংবা ডেস্কটপে নিজের পছন্দ মতো শপিং করা যায় অনলাইন শপিংয়ে। একই সঙ্গে অনেক ধরণের আইটেম দেখা যায় ও তাঁর ভিন্ন ভিন্ন মূল্যেরও খবর পাওয়া যায়। যেটা সবচেয়ে ভালো ও দামে পড়তা পড়ে সেটাই আমরা কিনে নিতে পারি। ক্যাশ অন ডেলিভারি কিংবা অনলাইনে পেমেন্ট করা যায় এই পার্চেজিংয়ে। আইটেমটি যদি পছন্দ না হয়, সেটা আবার রিটার্ন করেও দেওয়া যায় সহজে।

অনলাইন শপিং করে সময়ের অপচয় খুবই কম হয়, বলা যায় নগণ্য। দোকানে কিছু কিনতে যাওয়া ও ফিরে আসা একটা সময় সাপেক্ষ ও আর্থিক ব্যয় সাপেক্ষ ব্যাপার। ফলে অর্থেরও কিছুটা সাশ্রয় হয়। মোটামুটি ভাবে বলা যায় ব্র্যান্ডেড কোম্পানির আইটেমগুলো সঠিক মূল্যেই পাওয়া যায়। এছাড়া কেনাকাটির সময় অনেক সময় বিশেষ অফারও দেওয়া হয় গ্রাহককে।

অনলাইনে আইটেম পছন্দের পর বুক করে অপেক্ষা করতে থাকা বেশ ভালোই লাগে। পার্সেলটা যখন ডেলিভারি বয় এসে হাতে দেয় তখন একটা আভিজাত্য ব্যাপার বোধ হয়। সেটা পেয়ে বেশ খুশি ও আনন্দ লাগে মনে। পার্সেলটা কতক্ষণে খুলে দেখবো মনের মধ্যে একটা উত্তেজনা শুরু হয়ে যায়। এটাও দেখা গেছে যে বাজারে নিজে গিয়ে কেনা আইটেমটার থেকে অনলাইনে শপিং করা আইটেমের মূল্য অনেকটাই কম থাকে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *