আমার পিতা

আমার পিতা
______________
সৌম্য ঘোষ
——————-
সেদিন দেখেছি তাঁকে মেদুর স্বপ্নে ,
আবার এলেন তিনি ,
অবিরাম বর্ষার শীতল বাতাসে , আমার পিতা!
তবে কি বেয়াড়া কিছু ঘটেছে আমার শহরে?
কখনো রৌদ্রে , কখনো বা পৌষের নলেন সুবাসে!

তোমার ছবি গোধূলির অস্তরাগ রাখে বুকে
স্বপ্ন-ঘোড়া ছোটে মাঠে , নদীতে নীল পদ্মের চোখে ।
রোজ সকালে বাতাসে কাঁপে কচি পিয়াল পাতা ।
রাজপথে হাঁটছে একা , আমার পিতা

অবিশ্বাস্য শূণ্যতায় , কখনো অরূপ বাগানে —
তিনি , আমার পিতা !
আমার দু’চোখ ভেজে , গাঢ় অন্ধকারে যেন কারো
পরম স্পর্শ পাই, আমি শোকাহত !

কখনো পিতার চোখে টলটলে জলের বুদ্বুদ
দেখিনি আমরা কেউ !
মধ্যে মধ্যে তাঁর ডাক শুনি দয়াবান রোদ্দুরে ,
গাঢ় সেই ডাক শুনি স্বপ্নের গভীর
স্তব্ধতায় কোন নৈ:শব্দের দিকে ।

পিতা , তোমার সেই ডাক
নদীর এক তীর থেকে অন্য তীরে
সুঘ্রাণ ভরা শষ্য-ক্ষেতের আলোর ওপর ,
সমুদ্র-ঘেরা কবিতার দ্বীপপুঞ্জে ।।

_______________________________

সৌম্য ঘোষ। চুঁচুড়া।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *