TAIMUR KHAN

 291 total views

পাখিপ্রিয়

 তৈমুর খান

 ‘আজ বাড়িতে কেউ থাকবে না, মা-বাবা সবাই গঙ্গাস্নানে। আমি একাই। তুমি সকাল সকাল চলে এসো।’

 ‘ঠিক আছে। আমি একটা টিউশন সেরেই দশটার মধ্যে চলে আসব। সেদিন তুমি কোনো কথাই রাখোনি, আজ কিন্তু না করতে পারবে না।’

     ফোনটা রেখে দিতে দিতে পাখি হাসল। মনে মনে বলল, দুষ্টু ছেলে একবার এসো তো!

       তারপর অপেক্ষা করতে লাগল পাখি। পড়তে ওর ভালো লাগল না। শুধু এঘর-ওঘর করে ঘুরল আর মনে মনে শিহরন জাগল তার।

        সেদিন প্রিয় খুব জোর করেছিল। অনেক বার চুমু খেয়েছিল। কিন্তু কিছুতেই রাজি হয়নি পাখি। আজ তো আর বাধা দেওয়ার কেউ নেই। আজ হয়তো সব দুয়ারই খুলে দিতে হবে তাকে। তবে বিয়ের আগে এসব করা কি ঠিক? বাবা বলেছিল, ভিন্ন ধর্মে বিয়ে তো সুখের হয় না। আর তারা তো তাই করতে চলেছে। অবশ্য অনেকেই তো করেছে। দিব্যি সুখেও আছে। তাহলে কি সে ভুল করতে চলেছে?

       পাখি ভাবল, আমি যদি ভারত হই, তাহলে প্রিয় তো পাকিস্তান! পাকিস্তানিকে ইচ্ছে করেই ভারতে ডেকে আনছি না তো? কিন্তু অমন ছেলেকে ভুলে থাকা কি সম্ভব? ভাবতে ভাবতে তার কপালে কয়েক ফোঁটা ঘাম জমল। পুনরায় মোবাইলটি হাতে নিয়ে প্রিয়র ফোন নাম্বার খুঁজতে লাগল। এমন সময় দরজায় বাইকের আওয়াজ। কলিং বেল বেজে উঠল ঘনঘন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *